⭆যৌন ও স্ত্রীরোগের স্থায়ী, আধুনিক ও সফল হোমিওপ্যাথিক চিকিত্সা⭅
পুরুষদের যৌন দুর্বলতা, দ্রুত বীর্যপাত, পুরুষত্বহীনতা, ধ্বজভঙ্গ, অতিরিক্ত স্বপ্নদোষ, স্পারম্যাটোরিয়া, হস্তমৈথুন অভ্যাস ও এর কুফল, লিঙ্গের অসারতা, সিফিলিস, গনোরিয়া ইত্যাদি, নারীদের জরায়ু সংক্রান্ত ব্যাধি, স্তন টিউমার/ক্যান্সার, বন্ধ্যাত্ব ও অন্যান্য স্ত্রীরোগসমূহের আধুনিক ও সফল হোমিওপ্যাথি চিকিত্সা।
যোগাযোগ: ডাক্তার আবুল হাসান; ডি. এইচ. এম. এস (বি. এইচ. এম. সি),
১০৬ দক্ষিন যাত্রাবাড়ী, শহীদ ফারুক রোড, ঢাকা ১২০৪,
ফোন :০১৭২৭-৩৮২৬৭১ ০১৯২২-৪৩৭৪৩৫

হস্তমৈথুন অভ্যাস ও হোমিওপ্যাথিক সমাধান

আপনিও লাইক দিন !

বলা হয়ে থাকে শুধুমাত্র কিশোর বয়সের ছেলে-মেয়েরা এটা করে থাকে কোন সেক্সুয়াল সম্পরকে জড়াবার আগে। কিন্তু আমি তা মনে করিনা। যেসব নারী/পুরুষদের মধ্যে যৌণ চাহিদা বেশি বা একাধিক সেক্সুয়াল সম্পর্কে জড়িয়ে পড়তে আগ্রহি বা অভ্যাস আছে তাদের মধ্যে এই অভ্যাসটা বেশি দেখা যায়। আবার উল্টোটাও আছে, যারা কোনভাবেই কোন সেক্সুয়াল সম্পর্ক করতে পারেনা তারা তাদের অপুরনীয় বাসনা দমন করতে হস্তমৈথুন করে থাকে।
কিশোর বয়ষ থেকে সাধারনত মানুষের এই অভ্যাস শুরু হয়, আর ধিরে ধিরে এটা নেশায় পরিনত হয়। মেডিকেল সায়েন্স-এ এটাকে কোন রোগ বলা হয়না। তবে এটা কোন ব্যধি না হলেও তা আমাদের জীবনে অনেক মারাত্মক সব সম্যসার সৃষ্টি করে। তাই ইসলাম ধর্ম এটাকে সরাসরি মহাপাপ বলে নিষিদ্ধ ঘোষনা করেছে

হস্তমৈথুন তখনি উদ্বেগের কারন হয়ে দাড়ায় যখন তা আপনার জীবন ও সম্পর্কের মধ্যে বাধার কারন হয়। আপনি যদি কিশোর কিশোরি না হন আর হস্তমৈথুন নিত্ত্যদিন চালাতে থাকেন তবে ঠিক এই মুহূর্ত থেকে আপনার জীবন যাপন পদ্ধতি ভেঙ্গে নতুন করে শুরু করুন।

আপনি কেন হস্তমৈথুন করেন এর কারনগুলা খুজে বের করুন। আপনি যদি এর কারন খুজতে না যেয়ে শুধু হস্তমৈথুন থামানোর দিকে মন দেন তাহলে কিছুদিন পরে আবার অভ্যাসটা ফিরে আসবে। কি কারনে আপনি হস্তমৈথুন করেন আপনি কি বিরক্ত, একাকি, আঘাতপ্রাপ্ত, নাকি যৌন অভিজ্ঞতা হতাশজনক। মনের মধ্যে স্থিরতা নিয়ে আসুন সমস্যার গোড়ার দিকে নজর দিন। ভাললাগে বলেই কি হস্তমৈথুন করেন ?

নিজের চিন্তা ধারাকে পরিবর্তন করুন। কারন এই হস্তমৈথুন আপনাকে পঙ্গু করে দিবে বিছানায়। এর কারনে আপনি আপনার স্ত্রীর নিকট পুরুষত্বহীন হয়ে যাবেন যা আপনার জন্য লজ্জার আর আপনার স্ত্রী জন্য কষ্টের

হস্তমৈথুনের এসময়ের সবচেয়ে বড় কারন হল অশ্লিল ভিডিও এবং ছবি দেখা, যা আপনাকে মানসিক ভাবে বহুকামি করে তুলছে, এসব ভিডিওর অনেক মডেল এর শারিরিক আবেদন যা আপনার মনের মধ্যে স্থায়ী প্রভাব ফেলেছে আর সেকারনেই যে অহেতুক উত্তেজনা শরিরে তৈরি হয় তার বহিঃপ্রকাশ হয় হস্তমৈথুন। হস্তমৈথুন হল নিয়ম-নীতিহীন সেক্সুয়াল চাহিদার বহিঃপ্রকাশ।

মানুষের বেশিরভাগ অভ্যাসের  পিছনে 'সময়' দারুন একটা ভুমিকা পালন করে। যেমন কেউ যখন দুপুরে নিয়মিত ধুমপান করে তাহলে এমন হয় যে ওই সময় নেশা না লাগলেও তার ধুমপান করতে হয়। হস্তমৈথুন এর ব্যপারেও এমন কিছু কাজ করে। আপনাকে এই সময়টা এড়িয়ে চলতে হবে। নিজেকে কাজের মধ্যে রাখুন দেখবেন অনেক কিছু ভুলে থাকতে সহজ হবে। রাতে ঘুমাতে যাবার আগে ব্যায়াম করুন হাল্কা-পাতলা, নিজেকে ক্লান্ত করে ঘুমাতে যান দখবেন ঘুম ভাল হবে।

বন্ধুদের সাথে আড্ডা মারুন, সাবধান অশ্লিল কথার মধ্যে যাবেন না।  মানুষের সাথে সামাজিক ভাবে চলাফেরা করুন, পরিবারের সাথে সময় দিন, ভাল চিন্তা ভাবনা করেন, অবসর সময়ে নিজেকে বাগান করা, বই পড়া, লেখালখি বিভিন্ন কাজে নিয়যিত করুন। ধিক্কার দিই সেই সব মানুষদের যারা সেক্সকে পন্য হিসেবে ব্যবহার করে সমাজকে সভ্যতাকে নিঃশেষ করে দিচ্ছে।

হোমিওপ্যাথিক সমাধান :-
হস্তমৈথুন অভ্যাস এমন এক সমস্যা যাতে একবার কেউ আক্রান্ত হলে প্রপার ট্রিটমেন্ট ছাড়া এ থেকে মুক্তির অন্য কোনো উপায় থাকে না। কিন্তু এর রয়েছে মারাত্মক সব কুফল। সঠিক সময়ে চিকিত্সা নিয়ে এই অভ্যাস পরিত্যাগ না করলে এর কুফল অনেক সময় ভয়াবহ যৌন দুর্বলতা, দ্রুত বীর্যপাত, পুরুষত্বহীনতা বা ধ্বজভঙ্গের রূপ ধারণ করে। তাই কোনো প্রকার সংকোচ না করে যথা সময়ে এ সমস্যা সমাধানে চিকিত্সকের সরনাপন্ন হওয়া জরুরি। আর এর একমাত্র এবং সফল ও অব্যর্থ চিকিত্সা রয়েছে হোমিওপ্যাথিতে যার ফলাফল অনেকের কাছেই ম্যাজিকের মত মনে হয়। তাই আপনি যদি এ সমস্যায় আক্রান্ত হয়ে থাকেন তাহলে কোনো প্রকার সংকোচ না করে আপনার বিস্তারিত সমস্যা আমাদের জানালে, আমরা অবস্থার আলোকে যথাযথ সমাধান দিব। অল্প কিছুদিনের প্রপার হোমিও চিকিত্সাতেই আপনার মন থেকে হস্তমৈথুন করার চিন্তা দূর হয়ে যাবে এবং এতে আপনার যৌন শক্তির কোনো প্রকার হেরফের হবে না। বরং সব কিছু স্বাভাবিক হয়ে আসায় এক্ষেত্রে যৌন শক্তি উত্তর উত্তর বৃদ্ধি হয়ে থাকে।

No comments:
Write comments
Recommended Posts × +