⭆যৌন ও স্ত্রীরোগের স্থায়ী, আধুনিক ও সফল হোমিওপ্যাথিক চিকিত্সা⭅
পুরুষদের যৌন দুর্বলতা, দ্রুত বীর্যপাত, পুরুষত্বহীনতা, ধ্বজভঙ্গ, অতিরিক্ত স্বপ্নদোষ, স্পারম্যাটোরিয়া, হস্তমৈথুন অভ্যাস ও এর কুফল, লিঙ্গের অসারতা, সিফিলিস, গনোরিয়া ইত্যাদি, নারীদের জরায়ু সংক্রান্ত ব্যাধি, স্তন টিউমার/ক্যান্সার, বন্ধ্যাত্ব ও অন্যান্য স্ত্রীরোগসমূহের আধুনিক ও সফল হোমিওপ্যাথি চিকিত্সা।
যোগাযোগ: ডাক্তার আবুল হাসান; ডি. এইচ. এম. এস (বি. এইচ. এম. সি), ১০৬ দক্ষিন যাত্রাবাড়ী, শহীদ ফারুক রোড, ঢাকা ১২০৪,
ফোন : ০১৭২৭-৩৮২৬৭১, ০১৯২২-৪৩৭৪৩৫
Showing posts with label মহিলাদের সমস্যা. Show all posts
Showing posts with label মহিলাদের সমস্যা. Show all posts

যে লক্ষণে বুঝবেন - জন্মনিয়ন্ত্রণ পিলটি আপনার দেহের উপযোগী নয়

জন্মনিয়ন্ত্রণে নারীদের বহুলপ্রচলিত একটি পদ্ধতি পিল। তবে সব ধরনের পিল সবার দেহের জন্যে উপযোগী হয়ে ওঠে না। এন্ডোমেট্রিয়াল টিস্যু জরায়ু থেকে বেরিয়ে আসা, জরায়ুত ফিব্রোয়াস টিস্যুতে টিউমার, পিরিয়ড চলাকালীন অতি রক্তপাত ইত্যাদি কারণে অনেক জন্মনিয়ন্ত্রণ পিল আপনাকে গর্ভধারণ থেকে রক্ষা করতে পারবে না। বর্তমানে যে পিলটি খাচ্ছেন তা যদি আপনার দেহের জন্যে উপযোগী না হয়ে থাকে, তবে বেশ কিছু লক্ষণ প্রকাশ পাবে। জেনে নিন এমনই ৭টি লক্ষণ।

নারীদের স্তনের বোটা ভেতরে ঢুকে যাওয়ার কারণ ও সামাধান !

একথা কারো অজানা নয় যে - স্বাভাবিকভাবেই একজন পুরুষের চেয়ে একজন নারীর দেহে সমস্যা একটু বেশিই হয়ে থাকে। আর এটি হওয়াটাই স্বভাবিক। কারণ একজন নারীর দেহে বহু রকমের কার্যাদি সম্পন্ন হয়। আর অন্য দিকে পুরুষের ক্ষেত্রে তা অতি নগন্য। বিশেষ করে বয়োঃসন্ধিকালে ও সন্তান জন্ম দেওয়ার প্রক্রিয়া বহু ধরণের সমস্যার সম্মখীন হতে হয়।

নারীদের যৌন ক্ষমতা বাড়াতে আপেলের ভুমিকা

একটি গবেষণায় দেখা গেছে, স্বাস্থ্যবতী মহিলারা দিনে একটি করে আপেল খেলে তাদের যৌন ক্ষমতা বেড়ে যায়। আপেলে পলিফেনলস ও অ্যান্টি অক্সিডেন্ট রয়েছে যা জননেন্দ্রিয়র মধ্যে রক্তপ্রবাহকে উত্তেজিত করে তোলে। এই কারণেই মহিলারা যৌনতা বেশি করে উপভোগ করতে পারেন।

মাসিক হবার পর, সেক্স করলে কি প্রেগনেন্ট হওয়ার সম্ভাবনা থাকে?

মেয়েদের মাসিকের সময়ে শারীরিক মিলন করলে গর্ভধারনের সম্ভাবনা থাকে না, তবে এই সময়ে শারীরিক মিলন থেকে বিরত থাকাই ভালো। বৈজ্ঞানিক ভিত্তিতে জানা যায় মাসিক হওয়ার ৭ দিন আগে ও পরের সময়ে শারীরিক মিলন করলে গর্ভ ধারণের সম্ভাবনা কম থাকে এবং এর মাঝামাঝি সময়গুলোতে গর্ভ ধারণের সমূহ সম্ভাবনা থাকে।

নারীদের বয়স ত্রিশ এর বেশি হলে সন্তান নেয়া ঝুঁকিপূর্ণ কেন?

সন্তান নেয়ার জন্য নারীদের ক্ষেত্রে উপযুক্ত বয়স হলো ২০-৩০ বছর।  ৩০ বছরের পর মায়েদের প্রজনন ক্ষমতা হ্রাস পেয়ে অর্ধেক এ নেমে আসে আর ৩৫ বছর পার করলে তা আরো কমে আসে। তবে শুধুমাত্র প্রথম সন্তান নেয়ার ক্ষেত্রে এই সমস্যাটি হতে পারে। পরবর্তী সন্তান ধারণের ক্ষেত্রে এই সম্ভাবনা অনেক কমে যায়।

যেসব কারণে নারীরা যৌনজীবনে অধিক অতৃপ্ত ও অসুখী হয়ে থাকে !

দেখা গেছে নারীরা পুরুষের তুলনায় যৌন জীবনে কিছুটা বেশি অসুখী হয়ে থাকে। এর বাস্তব কারণও রয়েছে অনেক। দেখা যায় নিজের ভালোবাসার পুরুষটির সাথেও যৌন জীবন নিয়ে খুশি নন প্রচুর নারী। মুখে প্রকাশ না করলেও মনের মাঝে একটা চাপা ক্ষোভ নিয়ে জীবন যাপন করেন টানা, মুখ ফুটে অনেকেই বলতে পারেন না যৌন জীবনে নিজের অতৃপ্তির কথা। কিন্তু এটা কেন? কেন প্রচুর নারী রয়ে যান যৌন জীবনে অসুখী ও অতৃপ্ত?