⭆যৌন ও স্ত্রীরোগের স্থায়ী, আধুনিক ও সফল হোমিওপ্যাথিক চিকিত্সা⭅
পুরুষদের যৌন দুর্বলতা, দ্রুত বীর্যপাত, পুরুষত্বহীনতা, ধ্বজভঙ্গ, অতিরিক্ত স্বপ্নদোষ, স্পারম্যাটোরিয়া, হস্তমৈথুন অভ্যাস ও এর কুফল, লিঙ্গের অসারতা, সিফিলিস, গনোরিয়া ইত্যাদি, নারীদের জরায়ু সংক্রান্ত ব্যাধি, স্তন টিউমার/ক্যান্সার, বন্ধ্যাত্ব ও অন্যান্য স্ত্রীরোগসমূহের আধুনিক ও সফল হোমিওপ্যাথি চিকিত্সা।
যোগাযোগ: ডাক্তার আবুল হাসান; ডি. এইচ. এম. এস (বি. এইচ. এম. সি),
১০৬ দক্ষিন যাত্রাবাড়ী, শহীদ ফারুক রোড, ঢাকা ১২০৪,
ফোন :০১৭২৭-৩৮২৬৭১ ০১৯২২-৪৩৭৪৩৫

বিয়ের পর নব দম্পতিদের যে কথাগুলো মেনে চলা উচিত

আপনিও লাইক দিন !

তরুণ দম্পতিরা বয়সের কারণেই অনেক বেশি উচ্ছল হয়ে থাকেন, জীবনটাকে উপভোগও করতে পারেন বেশি। কেননা পরস্পরের সঙ্গে বেশি সময় কাটাতে পারেন তারা।আবার বয়স কম হবার কারণে জীবনের অনেক কিছুই খুব সুন্দরভাবে গুছিয়ে নিতে পারেন। তবে হ্যাঁ, কমবয়সী দম্পতিদের ক্ষেত্রে কিছু ব্যাপার মনে রাখা খুবই জরুরি। কিছু ভুল করার কারণে জীবনের নানান পর্যায়ে সম্পর্ক নিয়ে চলে টানাপোড়ন।
জেনে নিন কোন ১০টি কাজ করলে জীবনটা হবে অনেকটাই সহজ-
১) বিয়ে করেছেন বলেই হুট করে বাচ্চা নিতে যাবেন না। হ্যাঁ, পরিবার থেকে চাপ দেবে। কিন্তু বুঝেশুনে পরিবার পরিকল্পনা করুন। এক্ষেত্রে ডাক্তারের পরামর্শ নিন, নিজেদের আর্থিক বিষয়টিও মাথায় রাখুন। সব মিলিয়ে সন্তান তখনই নিন যখন আপনারা তৈরি।

২) কম বয়সে আবেগ বেশি থাকে, ফলে দেখা যায় একটু মনোমালিন্য থেকেই বিশাল ঝগড়া হয়ে যায়। এই ব্যাপারটা নিয়ন্ত্রণ করতে হবে নিজেদেরই। তুচ্ছ বিষয় নিয়ে বারবার ঝগড়া করতে থাকলে সম্পর্কে তৈরি হবে দীর্ঘমেয়াদী সমস্যা।

৩) ঝগড়া হতেই পারে, কিন্তু সেটা নিজেদের মাঝেই রাখবেন। অল্প জিনিসে অস্থির হয়ে পরিবার ও বন্ধুদের ডেকে বিশাল একটা কাহিনী করে ফেলবেন না। কথায় কথায় বাপের বাড়ি চলে যাওয়া বা ডিভোর্স দেয়ার হুমকিও দেবেন না।

৪) নিজেদের আর্থিক পরিকল্পনা করুন খুব বুঝেশুনে। কতটা খরচ করতে পারবেন আপনারা, আপনাদের উপার্জন কীভাবে বৃদ্ধি করা যায় ইত্যাদি সমস্ত ব্যাপারই দুজনে আলোচনা করা সিদ্ধান্ত নিন। জীবন তো পড়েই আছেন এমন চিন্তাভাবনা করবেন না।

৫) সঞ্চয় শুরু করুন এখনই। এতে কোনোভাবেই দেরি করবেন না।

৬) বিয়ে করেছেন বলেই শিক্ষা জীবনে ঢিলেমি দেবেন না। উচ্চ শিক্ষা গ্রহনের পর্বটি অবশ্যই সমাধা করুন।

৭) যারা বিদেশে সেটেল হতে চান, তারা বিয়ের পর থেকেই চেষ্টা করুন। এবং সন্তান নেয়াসহ জীবনের অন্য সব বড় পরিকল্পনাও সেভাবেই করুন।

৮) আপনারা তরুণ দম্পতি বিধায় মুরুব্বি অনেকেই আপনাদের সম্পর্কে নাক গলাতে আসবেন, যা হতে দেবেন না।

৯) কম বয়সে মন অন্যদিকে চলে যেতেই পারে। অন্য কাউকে আকর্ষণীয় মনে হওয়া, ফেসবুকে বা অন্য কোনো সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশি সময় দেয়া, বিপরীত লিঙ্গের বন্ধুদের সাথে অধিক মেলামেশা। এই সমস্তই কঠোর হাতে দমন করুন।

১০) অস্থির অবস্থায় বা আবেগের বশে কোনো সিদ্ধান্ত নেবেন না। হুট করে অনেক বেশি খরচও কখনো করে ফেলবেন না। 

No comments:
Write comments
Recommended Posts × +